www.durbinnews.com::জানি এবং জানাই

ভালোবাসি



 ইশরাত জাহান রোজী    ২২ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৮:৫৫   সাহিত্য বিভাগ


"বড্ড ভালোবাসি তোমাকে!
কতটা ভালোবাসি ? এ কী বলা যায়? তবুও মাঝেমাঝে বলতে ইচ্ছে করে, অক্সিজেনের মতো! ঠিক অক্সিজেন না নিলে যেমন বেঁচে থাকা যায় না, তোমাকে ভালো না বেসেও তো বেঁচে থাকা যায় না! তোমাকে ভালো বাসি না, একথা আর মৃত্যু যেন একই সূত্রে গাঁথা!
তোমাকে ভালোবাসাটা ঠিক আমার অশ্রুর মতো,জানো! নীরবে, অজান্তেই আপন মনে বয়েই যায়। তবে, অশ্রুগুলো ভালোবাসার, নাকি অভিমানের তা নিয়ে মাঝেমাঝেই তুমুল দ্বন্দ্ব হয় ...
এক সময় বুঝি, ভালোবাসা আর অভিমানের মিলনেই এ অশ্রুর জন্ম হয়!
শুনেছি, অশ্রু নাকি ভালোবাসার অলংকার!
তবে,এই অলংকারের সৌন্দর্যে আমি পৃথিবী সেরা অহংকারী! ভালোবাসা আমার অহংকার!
ভালোবাসি বলেই তোমাকে হারানোর বড় ভয়! আমার ভালোবাসার বৃত্ত তোমায় আগলে রাখতে চায়, তবুও ভয়, যদি হারাই?
আমি তো নিঃস্বার্থভাবে ভালোবাসতে চাই,তবে লোভ? ভালোবাসা পাওয়ার লোভ কেন যেন হাতছানি দেয়। আমি লোভী হয়ে উঠছি। হিংস্রতাও যেন গ্রাস করছে আমায় একটু এক-টু করে...
জানো, সেদিন কে যেন বলছিলো, তুমি নাকি অন্য কারও মোহ-তে আটকে গেছ। তোমায় নিয়ে কানাঘুষো চলছে, তার কিছু অংশ ভুল করে দিব্বি আমার কানে আসছে। ওরা তো জানে না, তোমাকে ভালোবেসে কতটা দহন আমার বুকের খাঁজে! আমার দহনে যেন ঘি ঢেলে দেয়, আমি আরও জ্বলতে থাকি, তুমি শুধু টের পাও না!
কলিজা ছিঁড়ে যাওয়ার কষ্ট কখনো অনুভব করেছ? এখন প্রতি মুহূর্তে আমার কলিজা ছিঁড়ে টুকরো টুকরো হয়, তুমি কখনো বুঝেছ তা? হয়ত বুঝোনি, কিংবা বুঝেও না বুঝার ভানে এড়িয়ে যাও আমার ভালোবাসার দহনে জ্বলবে না বলে...
চেয়ে চেয়ে ভালোবাসা নেওয়ার মতো দৈনতা আর কিছুতেই নেই জানো? তবু বার বার সেই দৈনতায় নিজেকে সঁপে দিয়েছি। শুধু তোমায় বড্ড ভালোবাসি বলে...
আজ সারাদিন অনেক ভাবলাম, জানো? শেষে সিদ্ধান্তে এলাম। জীবনের শেষ সিদ্ধান্ত! আর কখনো তোমাকে ভালোবাসব না, আর কখনো ভালোবাসা চাইব না, কখনো আর অভিমানে কাঁদব না, তোমার সাথে আর কক্ষনো ঝগড়া করব না, কখনো আর অন্য কাউকে ভালোবাস কিনা তা জানার জন্য পাগল হব না...
মৃত মানুষ কী করে এসব করবে বলো?
ভালো থেকো ভালোবাসা!
আচ্ছা,আমি মরে যাওয়ার পর আমাকে একটু ভালোবাসবে?"
ভার্চুয়াল যোগাযোগ মাধ্যমের জনপ্রিয় সাইট ফেসবুকে এক প্রিয় বন্ধুর টাইমলাইনে শেয়ার করা একটি পোস্টের কথাগুলো এতক্ষণ পড়ছিল রুদ্র। পোস্টের নিচে একটা ছবি। ছবিতে একটি ঔষধের কৌটা,কিছু স্লিপিং ট্যাবলেট আর একটি অচেতন মেয়ের শরীর।
ছবির উপরে লেখা-- "মৌমিতার শেষ কথাগুলো !"
নাম আর ছবিটা দেখার পর রুদ্রর শরীর যেন স্থির হয়ে যায় এক মুহূর্তে ! বুকের ভিতরটা অসহ্য জ্বালা করে উঠে, চোখের কোণ থেকে দু'ফোঁটা গরম নোনা জল ঝরে পড়ে...
মুখ থেকে অস্ফুট স্বরে উচ্চারিত হয়, মৌমিতা!





All rights reserved www.durbinnews.com