www.durbinnews.com::জানি এবং জানাই

শাহ্ মনজুরুল হকের পক্ষে বিপুল সমর্থন



  স্টাফ রিপোর্টার    ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার, ১:২১   চলতি হাওয়া বিভাগ


 দরজায় কড়া নাড়ছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচন। আর এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেল থেকে সম্পাদক পদে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন এডভোকেট শাহ্ মনজুরুল হক। এ পদে প্রার্থী হওয়ার জন্য কয়েক বছর ধরেই নিরলস পরিশ্রম করে গেছেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির জয়ের খরা কাটাতে গেছেন আইনজীবীদের দুয়ারে। তাদের বিপদে-আপদে পাশে থেকেছেন। ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে উঠে আসা শাহ্ মনজুরুল হক প্রখ্যাত আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের জুনিয়র। জরুরি অবস্থার সময় আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে মামলা পরিচালনায় সক্রিয় ছিলেন। তার জন্ম ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে ১৯৭০ সালে। ১৯৯৮৬ সালে কৃতিত্বের সঙ্গে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ইসলামিক ইউনিভার্সিটি, কুষ্টিয়ায় আইন বিভাগে ভর্তি হন। বিরুদ্ধ পরিবেশে সক্রিয় ছিলেন ছাত্রলীগের রাজনীতিতে। ১৯৯১ সালে এলএলবি (অনার্স) সম্পন্ন করেন। পরে এলএলএম উত্তীর্ণ হন প্রথম শ্রেণিতে। ২৯শে সেপ্টেম্বর ১৯৯৬ সালে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন মনজুরুল হক। আপিল বিভাগে তালিকাভুক্ত হন ২০১১ সালের ১২ই মে। ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের জুনিয়র হিসাবে কাজ করতে পারাকে জীবনের অন্যতম অর্জন মনে করেন। তিনি বলেন, আমার আইনজীবী জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় ২০০৭-০৮।

জরুরি অবস্থা চলাকালীন সেই সময়ে তত্ত্বাধায়ক সরকারের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে বাংলাদেশের বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে তাঁর মামলায় ব্যারিস্টার রফিক-উল হক, ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ, এডভোকেট শ ম রেজাউল করিম ও ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এর সাথে অন্যতম আইনজীবী হিসেবে মামলাসমূহ পরিচালনা করি ও মাননীয় নেত্রীকে কারাগার থেকে মুক্ত করায় ভুমিকা পালন করি। এর মধ্যে একটি মামলা ৬০ ডিএলআর (২০০৮) পৃঃ ৬২৩, ২ SCOB (২০১৪) HCD ৩৬ সহ অনেক ল’ রিপোর্টে প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়াও ঐ সময়ে বর্তমানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি খাত উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টা জনাব সালমান এফ রহমান, বর্তমানে মাননীয় অর্থমন্ত্রী জনাব আ হ ম মুস্তফা কামাল (লোটাস কামাল), সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব মহিউদ্দিন খান আলমগীর সহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের মামলা পরিচালনা করি এবং তাদের কারাগার থেকে মুক্ত করি। পেশাগত জীবনে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করছেন শাহ্ মনজুরুল হক। বেক্সিমকো গ্রুপ, ইষ্টার্ণ হাউজিং লিমিটেড, বাংলাদেশ ঔষধ শিল্প সমিতি, বাংলাদেশ ফার্মাসি কাউন্সিল, রিয়েল এ্যাস্টেট এন্ড হাউজিং এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (রিহ্যাব), ইন্সটিটিউট অফ চ্যার্টাড সিকিউরিটিজ অফ বাংলাদেশ (আইসিএসবি), বোর্ড অফ এয়ার লাইন্স রিপ্রেসেনটেটিভ (বিএআর), শামসুল আলামিন গ্রুপ, লোটাস কামাল গ্রুপ, কনটিনেন্টাল ট্রেডার্সের আইন উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। মেট্রোপলিস আইডিয়াল ল’ কলেজের প্রতিষ্ঠাতা তিনি। ব্যক্তিগত উদ্যোগে তিনি গড়ে তুলেছেন জুবায়দা ফাউন্ডেশন। তার মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত এই ফাউন্ডেশন স্থানীয় জনগোষ্ঠীর দুঃখ লাগবে এবং উন্নয়নমূলক বিভিন্ন কাজে অবদান রেখে যাচ্ছে। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকা-ে ব্যক্তিগত অনুদান ও সহায়তা প্রদান করে আসছেন তিনি। বিজ্ঞ আইনজীবী ও অসহায় রোগীদের চিকিৎসা সেবায় আর্থিক সহায়তা, দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মধ্যে শীতবস্ত্র ও খাদ্য বিতরণ, শিক্ষার উন্নয়নে দরিদ্র ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করে স্ব-উদ্যোগে তাদেরকে আর্থিক সহায়তা প্রদানসহ বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নে অবদান রেখে আসছেন। বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানে নিজেকে সক্রিয় রেখেছেন অনেক দিন হলো। বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ, ইসলামিক ইউনিভার্সিটি এলামনাই এ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, বরহিত, ঈশ্বরগঞ্জ, ময়মনসিংহ শাখায় বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করছেন।




 এ বিভাগের অন্যান্য


হ্যালো, নীতিবাবু


বিশ্বসেরা চিন্তাবিদ বাংলাদেশের কে এই মেরিনা তাবাশ্যুম?


দেশে মৃত্যুর মিছিলে আজ যোগ হলো ৩৫


স্বাস্থ্যের নয়া ডিজি খুরশীদ আলম


ডিজি আজাদ অধ্যায়ের সমাপ্তি


করোনার থাবায় আজও গেল ৫০ প্রাণ, নতুন শনাক্ত ২৮৫৬


এমপি পাপুলকে নিয়ে যা বললেন স্ত্রী সেলিনা


থামছেই না মৃত্যুর মিছিল, আজ ৪২


অতঃপর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের পদত্যাগ


সাহিত্যে স্বাধীনতা পুরস্কার পাওয়া রইজউদ্দীন কে?


শাহ্ মনজুরুল হকের পক্ষে বিপুল সমর্থন


কাদেরের কথা বুঝে আসছে না রুমিন ফারহানার


মিজানুর রহমান আজহারীর বক্তব্য শেয়ার করলেন তসলিমা নাসরিন


স্যার ফজলে হাসান আবেদ আর নেই


অমিত শাহের সঙ্গে একমত নন মোমেন





All rights reserved www.durbinnews.com