www.durbinnews.com::জানি এবং জানাই

বায়তুল মুকাদ্দাস জয়ী মুসলিম বীর সালাহউদ্দিন আইয়ুবী



 জিয়া আহসান    ১০ জুন ২০১৯, সোমবার, ৪:০৮   ধর্ম বিভাগ


মুয়াজ্জিনের অপেক্ষায় ছিল মসজিদুল আল আকসা। তিনি কথা দিয়েছিলেন সেখানে ফের আজানের সুমধুর ধ্বনি শোনা যাবে। তিনি তার কথা রাখতে পেরেছিলেন। সুলতান সালহউদ্দিন আহয়ুবী ছিলেন শত্রুর চোখেও দ্যা গ্রেট। মুসলিমদের হারানো দিনের গৌরব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। মুসলিম জাতির ঘুম বাঙানো এই বীরের জন্ম ৫৩২ হিজরি  (১১৩৮ খ্রিষ্টাব্দে) মেসোপটেমিয়ার তিকরিতে। পুরো নাম সালাহউদ্দিন ইউসুফ ইবনে আইয়ুবী। শুধু যুদ্ধ নয়, জ্ঞানের আরও বিভিন্ন শাখাতেও দখল ছিল তার। আরবের ইতিহাস সম্পর্কে তিনি ছিলেন রীতিমতো পন্ডিত। পাটিগনিত, আইন ও ধর্মীয় বিষয়েও ছিল অগাধ জ্ঞান। ছোট বেলা থেকেই স্বপ্ন দেখতেন, একদিন বায়তুল মুকাদ্দাস জয় করবেন। ৯০ বছর ক্রসেডারদের দখলে থাকা বায়তুল মুকাদ্দাসকে মুক্ত করেন তিনি। ছোট বেলাতেই যুদ্ধ বিদ্যার জ্ঞান লাভ করেন। বিশেষ আগ্রহ দেখে চাচা তার  জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেন। ৫৪৯ হিজরিতে সালাহউদ্দিন দামেস্কের রাজ দরবারে চাকরি নেন।  ১১৬৩ সালে আইয়ুবীকে মিসরের রাজ দরবারের উচ্চ পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা করা হয়। মিসরের প্রেসিডেন্ট তখন আল-আদিত। আল-আদিতের মৃত্যুর পর সালাউদ্দিন আইয়ুবী মিশরের গভর্নর ও সেনা প্রধান হন। মুসলমানদের হারানো গৌরব পুনরুজ্জীবনের জন্য জীবনের বেশির ভাগ সময়ই তিনি কাটিয়েছেন যুদ্ধের ময়দানে। ছোট বেলায় মসজিদুল আল আকসার মিম্বর ধরে তা রক্ষার শপথ নিয়েছিলেন আইয়ুবী। যা তিনি পরে অক্ষরে অক্ষরে পালন করেন। আইয়ুবীর যুদ্ধ কৌশল ছিল অসাধারণ। গেরিলা কায়দায় শত্রুদের ওপর হামলা চালাতেন তিনি। তার গেরিলা বাহিনী শত্রু শিবিরে আঘাত হেনে মুহুর্তের মধ্যে উধাও হয়ে যেতো। সালাহউদ্দিন আইয়ুবী প্রথমে ফিলিস্তিনের শোবক দূর্গ অবরোধ করে সেটা জয় করেন। পরে নুরুদ্দীন জঙ্গীর সহায়তায় ক্রাক দুর্গও জয় করেন। ক্রসেডারারা প্রতিশোধ নিতে পাল্টা আক্রমণের প্রস্তুতি নেয়। তাদের টার্গেট ছিল মিসরের আলেকজান্দ্রিয়া। গোয়েন্দা মারফত এ তথ্য আগেই জেনে যান সালাহউদ্দিন। তিনি এলাকার জনসাধারণকে সরিয়ে সৈনিকদের ছদ্ধবেশে জনগনের ঘরে লুকিয়ে রাখেন। ক্রসেডাররা বিনা বাধায় আলেকজান্দ্রিয়া দখলের নেন। কিন্তু লুকিয়ে থাকা মুসলিম সৈনিকরা আক্রমন করে ক্রুসেডারদের পরাজয় নিশ্চিত করে। ১১৭৪ খ্রিস্টাব্দে সালাহউদ্দিন সিরিয়া জয় করে সুলতান উপাধি পান। কিন্তু মাথায় সবসময় ঘুরতো কখন আল আকসা জয় করবেন। অনেক যুদ্ধ আর লড়াইয়ের পর তিনি হালব, হাররান ও মসুল দখল করে নেন। এতে বায়তুল মুকাদ্দাসের পথে আর বড় কোন বাধা ছিলনা। তারপরও এ যুদ্ধ ছিল অত্যন্ত কঠিন। আল আকসা অভিমুখী অভিযানের আগে তিনি বলেছিলেন, আমাদের এমনভাবে পা বাড়াতে হবে যেন এটাই আমাদের শেষ যাত্রা। আমরা আর কোনদিন নাও ফিরতে পারি। ১০৯৯ সালের ১৫ই জুলাই কিছু মুসলিম নেতার সহায়তায় খ্রিস্টানরা বায়তুল মুকাদ্দাস দখল করে। সেখানে মুসলিমদের ওপর চলতে থাকে বর্বর নির্যাতন। ১১৮৭ সালের ২০শে সেপ্টেম্বর সুলতান আইয়ুবী বায়তুল মুকাদ্দাস অবরোধ করেন।  রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে দুপক্ষেই অনেক হতাহত হন। অনেক ত্যাগের বিনিময়ে ৫৮৩ হিজরির ২৭শে রজব শুক্রবার বায়তুল মুকাদ্দাসে বিজয়ী বেশে প্রবেশ করেন সুলতান আইয়ুবী।




 এ বিভাগের অন্যান্য


ভাঁজ করে রাখা হল কাবার গিলাফ!


মহাকাশ থেকে তোলা কাবার ছবি নিয়ে তোলপাড়


বিশ্ব কোরআন প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় বাংলাদেশি শিহাব


কাবা শরীফের ইতিহাস


রাষ্ট্রের টাকায় হজে যাওয়া জায়েজ কি?


৬৫ ভাগ মাদরাসা শিক্ষার্থী ফেসবুকে সক্রিয়


কোরআন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের ত্বকি হলেন বিশ্বসেরা


বায়তুল মুকাদ্দাস জয়ী মুসলিম বীর সালাহউদ্দিন আইয়ুবী


কাল পবিত্র ঈদ উল ফিতর


ভারত-পাকিস্তানে ঈদ বুধবার


‘বরিশাইল্লারা খারাপ, কুমিল্লার লোক ইতর’ বলা যতবড় গুনাহ


মক্কা বিজয়ের দিন আজ


ঐতিহাসিক বদর দিবস


নামাজ দেখে যেভাবে ইসলাম গ্রহণ করেন ভিক্টোরিয়ান যুগের খ্রিস্টান


কোরআন অনুবাদ করতে গিয়ে মুসলিম হলেন মার্কিন যাজক





All rights reserved www.durbinnews.com