www.durbinnews.com::জানি এবং জানাই

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, রবিবার

এতো প্রতিক্রিয়া আগে কখনও পাইনি



 দূরবীন ডেস্ক    ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ২:২৯   ফেসবুক বিভাগ


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারি অধ্যাপক রাশেদা রওনক খান ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ছাত্র রাজনীতি নিয়ে ১৫ তারিখ যে স্ট্যাটাসটা দিয়েছিলাম, দেখলাম সাইবার জগতে এটার কয়েক ধরণের ব্যাখ্যা দাঁড়িয়েছে! সঙ্গত কারণেই আমার মনে হচ্ছে যারা ভুল ব্যাখ্যা করছেন, তাদেরকে আরেকবার করে স্ট্যাটাসটি পড়ার অনুরোধ করতে পারি| এই স্ট্যাটাস প্রকাশ করার পর যে পরিমাণ ইনবক্স পাচ্ছি, এতো মেসেজ আমি আর কখনো পাইনি, যা প্রতি মুহূর্তে পাচ্ছি, এখনো সমান তালে পেয়েই যাচ্ছি| সেইসব লেখায় তারুণ্যের হাহাকার যেমন দেখছি, তেমনি শুনছি তারুণ্যের বলা-না বলা অনেক কথা| সবার উত্তর এই মুহূর্তে আমার পক্ষে দেয়া সব সম্ভব নয়, তবে নিশ্চয়ই সবাইকেই তাদের জানতে চাওয়া বা যে অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন, তা নিয়ে কথা বলার চেষ্টা করবো| কিছুটা সময় লাগবে! অনেকেই আমাকে ক'জনের শেয়ার কিংবা পত্রিকার হেডিং কিংবা ইউটিউবে এই স্ট্যাটাস নিয়ে রিপোর্ট পাঠিয়েছেন (তাদের ধন্যবাদ জানাই), তা দেখেই বলছি, কয়েকধরণের ব্যাখ্যা দাঁড়িয়েছে, যার সাথে আমার লেখার উদ্দেশ্য কয়েক ক্ষেত্রে মিলেছে, কয়েক ক্ষেত্রে মিলেনি|
অনেকেই স্ট্যাটাসটি প্রকাশের ক্ষেত্রে ব্যক্তি 'শোভন-রাব্বানি'দেরকেই সামনে নিয়ে এলো এবং নানাভাবে এই স্ট্যাটাসটিকে বলতে চেয়েছেন যে, শিক্ষক হিসেবে আমি indirectly আসলে তারা মেধাবী, ভদ্র বুঝাতে চেয়েছি, তাদের পরিবারকে বড় করে দেখিয়েছি এবং তাদের এই বাদ পড়াটায় আহত হয়ে লিখেছি, তাদের বলবো পড়ুন আরেকবার| দ্বিতীয়ত, যারা বলছেন আমি তাদের বিরুদ্ধে লিখেছি, আমার সাথে তাদের ব্যবহার ভালো ছিলোনা, তাদেরকেও বলবো, আরেকবার পড়ুন! উভয় পক্ষকেই বলবো, তাদের ইমেজ বৃদ্ধি করা কিংবা তাদের বিরুদ্ধে বলা-কোনটাই আমার আগ্রহের বিষয় ছিলোনা| আমি বলেছি, তারা শুনেছে এবং তাদের মাঝে আমি কোনরকম নেগেটিভ আচরণ দেখিনি, শব্দটা ছিল, "অবাক হয়েছেন", কিন্তু এটাকে নেগেটিভভাবে কেউ কেউ প্রচার করছেন, যা খুব দুঃখজনক| আপনারা অনেকেই বলেন, কেউ সত্য বলেনা, কেউ সাহসী উচ্চারণ করেনা| কিন্তু কেউ ঘটনার নির্মোহ বিশ্লেষণ করলে সেই বিশ্লেষণকে গুলিয়ে জল ঘোলা করে মাছ শিকার করাও তো ঠিক নয়!
আমি বরাবরই তারুণ্যের পক্ষে, আমার কাজই তরুণদের নিয়ে| শিক্ষকতার পাশাপাশি একসময় 'ফার্স্ট মিনিস্টার' অনুষ্ঠানটি করতাম তরুণদের মুখোমুখি করতে দেশের মন্ত্রীদের| তরুণরা প্রশ্ন করুক, তারা তাদের অধিকার বিষয়ে সচেতন হউক, দেশকে জানুক, রাজনীতিকে ভালবাসুক, সেই ইচ্ছে থেকেই তরুণদের জন্য একটা প্লাটফরম ছিল| দেশের গুটিকয়েক তরুণ কোটিপতি হবে চাঁদাবাজি আর টেন্ডারবাজি করে, আর বাকি তরুণ হাজার টাকার চাকুরী পাওয়ার আশায় পায়ের স্যান্ডেল ছিঁড়বে, কেউ কেউ বেকারত্বের জ্বালা সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করবে, তা হতে পারেনা| ছাত্রনেতা তাদেরই হওয়া উচিত যারা এই বাকি তরুণদের নিয়ে ভাববে। দেশ নিয়ে ভাববে, নিজেকে নিয়ে নয়| বঙ্গবন্ধু কখনোই নিজেকে নিয়ে ভাবেননি, তাহলে তাঁর সৈনিকরা (সবাই নয়) কেন এমন স্বার্থপর হবে? আমি আবারো বলছি, ছাত্রনেতাদের কাউকে কাউকে কারা, কিভাবে, কেন, কোন প্রক্রিয়ায় ভুল পথে নেয়, সেটা অনুসন্ধানের আহবান করেছি| আমার এই উদ্বিগ্নতা কেবল এই দুজনের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য তা নয়, বরং ছাত্ররাজনীতির বর্তমান প্রেক্ষিত নিয়েও। সর্বশেষ ধন্যবাদ জানাই সেইসব পাঠকদের, যারা বুঝতে পেরেছেন, আমি আসলে কি ইঙ্গিত করেছি তাদের ঘটনাটি একটি উধাহরন হিসেবে ব্যবহার করে, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা রইলো লেখাটি বুঝার জন্য|




 এ বিভাগের অন্যান্য


মদ যে খায় না


আমার বিরুদ্ধে তদন্ত হলে অনেক এমপি-মন্ত্রীরও যাবজ্জীবন হবে!


বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে ভারত কেন সহায়তা করেছিল


টের পাচ্ছিলাম বাঁচতে শুরু করেছি আবার


ধন্যবাদ ইমরান খান


পিয়ন যেখানে নেতা ও বিত্তশালী


এতো প্রতিক্রিয়া আগে কখনও পাইনি


সুন্দরীদের হাতে টকশো, পীর হাবিবের প্রশ্ন


শোভন-রাব্বানীকে নিয়ে যা বললেন ঢাবি শিক্ষিকা


উগান্ডা আর বাংলাদেশের মিল যেখানে


চালু হল ফেসবুক ডেটিং


লুট নিয়ে পীর হাবিবুর রহমান যা লিখেছেন


রুমিন ফারহানা কাজটা ভালো করেননি, তবে...


সন্তান হারানো মায়ের স্ট্যাটাস-আমার এই লেখাটাও কি আপনার কাছে গুজব!


মানুষের জীবন-মরণের বিষয় নিয়ে তামাশা




ডি ৫, ৫৩১/বি/১ পশ্চিম শেওড়াপাড়া, মিরপুর, ঢাকা
মোবাইল- 01712105339
durbinnews19@gmail.com durbinnews19@durinnews.com © 2021 durbinnews

All rights reserved www.durbinnews.com